রচনা

অধ্যবসায় রচনা সকল শ্রেণির জন্য (১০,৯,৮,৭ম শ্রেণি)

রচনা অনেক গুরুত্বপূর্ণ পড়াশোনার জীবনে। তার মধ্যে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যবসায় রচনা। মানুষের সৃজনশীল শক্তি বাড়িয়ে দেয় রচনাগুলো। অনেক বেশি বেশি করে রচনা পড়া আমাদের উচিত। এতে আমাদের সৃজনশীল শক্তি অনেকগুণ বেড়ে যাবে। তো চলুন আজকে আপনাদের জন্য আমদের নিয়ে আসা অধ্যবসায় নিয়ে কিছু আলোচনা করা যাক।

[ সংকেত:সূচনা, অধ্যবসায়ের গুরুত্ব, ছাত্রজীবনে অধ্যবসায়, উপসংহার]

সূচনা :

কোনাে কাজে কাঙিক্ষত সাফল্য লাভ করার জন্য বারবার চেষ্টা বা সাধনা করার নাম অধ্যবসায়। সুখ-দুঃখ, উত্থান-পতন, ব্যর্থতা সফলতা, এগুলাে মানবজীবনের অপরিহার্য বিষয়। জীবনে ব্যর্থতা ও সফলতা পাশাপাশি থাকে। তাই কোনাে কাজে প্রথমেই যে সফলতা আসবে এমন কোনাে কথা নেই। তবে ভেঙে পড়লে চলবে না। আমরা জানি Life means struggle’ জীবন স সংগ্রামময়। এই সংগ্রামের মধ্য দিয়ে একদিন সাফল্যের স্বর্ণ শিখরে আরােহণ করা সম্ভব।

অধ্যবসায়ের গুরুত্ব :

“Failure is the pillar of success.”। মানুষ হিসাবে কেবল বেঁচে থাকাকেই জীবনের সার্থকতা বলা যায় না। এ জীবন মানে কাজ আর কাজের সমাহার। তবে কাজের সাথে জ্ঞানের সংযােগ থাকা চাই। পৃথিবীতে এমন কোনাে ব্যক্তি নেই, যে পরিশ্রম বা অধ্যবসায় ছাড়া উন্নতি লাভ করেছে। জীবনে সুখ, সফলতা, এ পরিপূর্ণতা আনতে অবশ্যই কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যবসায় হতে হবে। আজ আমরা ঘরে বসে টেলিফোনে দেশ ও বিদেশের বন্ধুর সাথে গল্প করি, প্রয়ােজনীয় খবর দেই অথচ আমরা কি কখনাে ভেবে দেখেছি, এ টেলিফোন নামক যন্ত্রটা আবিষ্কার করতে গিয়ে গ্রাহাম বেলকে কতটা ত্যাগ-তিতিক্ষা, শারীরিক ও মানসিক শ্রম, সময়, কষ্ট ভােগ ও সাধনা করতে হয়েছে?

See More: আমার জীবনের লক্ষ্য রচনা

ছাত্রজীবনে অধ্যবসায় :

ছাত্রজীবনেও যে অধ্যবসায়ের প্রয়ােজন আছে, এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। জীবনে সফলতা চাইলে, অবশ্যই অধ্যবসায়ী হতে হবে। যে ছাত্র একবার পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে দ্বিতীয়বার ভয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে না, সে জীবনে কখনাে সাফল্য লাভ করতে পারে না। ছাত্রদের জানা উচিত ছাত্রানাং অধ্যয়নং তপঃ।

তাদের আরও জানা উচিত Diligence is the mother of good luck- (Franklin) অর্থাৎ অধ্যবসায়ই সৌভাগ্যের প্রসূতি। অনেকে মনে করেন যারা জীবনে বড় হয়েছে তারা অত্যন্ত মেধাবী ও অসাধারণ প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। এ ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। প্রতিভা কারাে একচেটিয়া সম্পত্তি নয়।

সফলতা অর্জনে প্রতিনিয়ত পরিশ্রম অত্যাবশ্যক। এ সম্পর্কে ডাল্টনের কথা স্মরণযােগ্য “লােকে আমাকে প্রতিভাবান বলে, কিন্তু আমি পরিশ্রম ছাড়া কিছুই জানি না। আবার ভলতেয়ার বলেছেন, “প্রতিভা বলে কিছু নাই। পরিশ্রম ও সাধনা করে যাও তাহলে প্রতিভাকে অগ্রাহ্য করতে পারবে।” জীবন যুদ্ধে সফলতার মূল চাবি যে অধ্যবসায় তা ইতিহাসের পাতায় সাক্ষ্য বহন করে।

নেপােলিয়ান জীবনে অসম্ভব বলে কিছু জানতেন না। তাই তিনি সগর্বে উচ্চারণ করলেন, ‘Impossible is a word that can be found in the dictionary of the fools. তার উক্তি ও অদম্য অধ্যবসায়ের ফসল। এ রকম দৃষ্টান্ত ইতিহাসে অপ্রতুল নয়।

উপসংহার :

পরিশেষে এ কথা বলা যায়, যেকোনাে কাজে সাফল্য লাভের জন্য আমাদের সকলকে অধ্যবসায়ী হতে হবে। এ সম্পর্কে Chamfort এর উক্তিটি স্মরণীয় Success makes success or money makes money.’ ইতিহাস থেকে জানা যায়, পৃথিবীর অধিকাংশ জ্ঞানী-গুণী, দার্শনিক, বিজ্ঞানী, পণ্ডিতরাই ছিলেন চাষাভূষা, শ্রমিক, দর্জি, মুচি ইত্যাদি গরিব লােকের সন্তান। তারা জগতে বড়াে হয়েছেন, শুধু অধ্যবসায়ের শক্তিতেই।

See More অধ্যবসায় রচনা.


অধ্যবসায় রচনা কেন পড়বেন?

রচনা মানুষের সৃজনশীল শক্তি অনেকগুণ বাড়িয়ে দেয়। পরীক্ষার জন্য আমাদের এই বিশেষ রচনাটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ । তাই ছাত্র বা ছাত্রীদের উচিত এই অধ্যবসায় রচনাটি ভালোভাবে পড়া এবং মুখস্ত করা। এতে করে তারা পরীক্ষায় অনেক ভালো করবে আশা করা যায়।

রচনা নিয়ে শেষ কথা?

আশা করি আপনারা কোনো রকম ভুল পাননি।আমাদের এই রচনাই যদি কোনো ভুল পান তা হলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টে যানাবেন। মানুষ মাত্রই ভুল করে। তাই দয়া করে মাফ করে দেবেন।সবাই ভালো থাকবেন। আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়াবারকাতুহু।

Leave a Reply

Your email address will not be published.