গল্প

বাসর রাতের গল্প – Basor Rater Golpo

আজকে আমরা দেখবো কিছু অসাধারণ বাসর রাতের গল্প। যা আপনাকে অব্যশয় বিমোহিত করবে। আজকের এই বাসর রাতের গল্প গুলো সব ইন্টারনেট থেকে নেওয়া। তো চলুন শুরু করা যাক: ( বাসর রাতের গল্প,Basor Rater Golpo )

বাসর রাতের রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প
বাসর রাতের রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প

বাসর রাতের গল্প

বাসর ঘরে ঢুকতেই পুছকে টা বিছানা থেকে নেমে এসে আমাকে সালাম করেই আমার দুইপাশে কিছু খুঁজতে লাগল আমি ওকে জিজ্ঞেস করলাম– কি ব্যাপার এমন ভাবে কি করতেছ ও কিছুটা অবাক হয়ে আমাকে বলল– কি ব্যাপার বিড়াল কই আপনি জানেন না বাসর রাতে বিড়াল মারতে হয়।ও মজা করছে ভেবে আমি ওকে বললাম।– খুব ফাজিল মেয়ে তো তুমিও বিরক্তিকর ভাব নিয়ে আমাকে বলল।– আমি ফাজিল মানে?
তোমরা কেউ আমারে একবার নাহার পিক দাও আমি খাইয়া মঙ্গল গ্রহে জামুগা) নিজেকে কিছুটা স্বাভাবিক করে। দেখো ভাবির বিড়াল মারার কথা ঠিকই বলেছে, কিন্তু এই বিড়ালটা হচ্ছে তুমি আমি তোমাকে ইঙ্গিত করেছে।– ও বলল– আপনি আমাকে বিড়াল বললেন ?কথাটা বলেই পিচ্চি বউ টা দুই হাত দিয়ে চোখ কচলাতে কচলাতে হু হু হু করে কেঁদতে শুরু করল।– ও আল্লাহ এই কোন মুসিবতে পড়লাম আমি,, আচ্ছা আচ্ছা থামো।– আপনি আমাকে কেন বিড়াল বললেন?– আচ্ছা সরি এই কান ধরছি আর এমন হবেনা।তারপর পিচ্চি টা আমাকে বলল।– আপনার মোবাইলটা একটু দেন তো–কেন ?– এত কথা বলেন কেন ?– আমি ওকে মোবাইলটা দিতে দেখি ও আমার ফোনের ডাটা অন করে মেসেঞ্জারে ঢুকে চ্যাট লিস্ট এর সবকটা মেয়েকেই ব্লক দিয়ে দিছে।– এই তুমি সব কি করছো ??– দেখেন আপনি এখন বিবাহিত আপনি এখন শুধু আমার সাথে কথা বলবেন আমি আপনাকে এতগুলো ভালোবাসি আপনি অন্য কারো হয়ে গেলে আমি বাঁচবো না।– দুঃখের ঠেলায় হাসমু না কানমু কিছুই বুঝতেছি না। বউ আমার ক্লাস সেভেনে পড়ে।
ও আপনাদের তো আমার পরিচয় দেওয়াই হয়নি আমি শ্রাবণ,, । আর ও হচ্ছে রিয়া মানে আপনাদের ভাবি । আর আমি এবার ইন্টার দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র । দুঃখের কথা কি আর কোমু রে ভাই।আমার জল্লাদ আব্বু আমাকে জোর করে এই অল্প বয়সে একটা মেয়ের সাথে বিয়ে করাই দিছে।
যাই এবার মুল কথা– আমার হাত থেকে মোবাইল ফোনটা নিয়ে সব মেয়েদের আইডি ব্লক করে দিন।– আমি বললাম, হ্যাঁ সেটা বুঝলাম কিন্তু ওরা আমাকে মেসেজ করে না — আমি এতকিছু বুঝি না তুমি এখন থেকে আমি ছাড়া অন্য কারো সাথে কথা বলবা না।– কেমনডা লাগে শালার এই মাইয়া তো আমার জীবনটা তেজপাতা করে দিবে ওরে মা আমারে তুই এইডা কার সাথে আমার বিয়ে দিলি।– আচ্ছা দেখা যাবে।– আচ্ছা চলেন লুডু খেলি– কি এই তুমি এত রাতে লুডু কই পাবাকথাটা বলতেই দেখি মেয়েটা টা ধর কাপড় রাখার ব্যাগ থেকে লুডু বের করছে (ওরে আল্লারে এইটা দেখার বাকি ছিল ) — চলুন শুরু করি লুডু খেলা, যদি আপনি হারেন তাহলে আমাকে কিন্তু ফুচকা খাওয়াতে হবে।– আর যদি তুমি হারো??– আমি হারবো না যদিও হারি তাহলে আবার খেলা হবে হিহিহি– মাইয়ার কথা শুনছেন কি ফাজিল মেয়ে রে বাবা তারপর খেলা শুরু, । কাম সারছে শেষমেষ আমি হেরে গেলাম।– এইবার জান আমার জন্য ফুচকা নিয়ে আসেন।– এখন ?– জি– এই তোমার মাথা ঠিক আছে এখন রাত কয়টা বাজে তার উপর আবার বাসর রাতে প্লিজ বাবু আমি কালকে সকালে এনে দিব। — না আমার এখনই লাগবে নয়তো আমি এখন আপনার আম্মুকে বলব আপনি আমাকে ভালোবাসেন না আর অন্য মেয়ের সাথে আপনার অ্যাফেয়ার আছে।
— কেমনডা লাগে তোমরা হাস আর আমি টেনশন এ বাচিনা কি আর করা বাধ্য হয়ে লুকিয়ে লুকিয়ে বাসা থেকে বের হলাম। রাস্তা দিয়ে হাঁটছি আর ভাবছি পৃথিবীতে আমি একমাত্র মানুষই যে কিনা বাসর রাতে ও বাসা থেকে লুকিয়ে বের হয়ে বউয়ের জন্য ফুচকা কিনতে যাচ্ছি তারপর অনেক খুজে একটা ফুচকা ওয়ালার দোকান পেলাম। তাড়াতাড়ি ফুচকা কিনে এক বালতি দুঃখ মনে লইয়া বাসার দিকে রওনা দিলাম বাসায় পৌঁছাতেই দেখি ঘুমিয়ে গেছে ঘুমন্ত অবস্থায় রিয়াকে একেবারে পিচ্চি পরিদের মত লাগছে কি আর বলব রে ভাই আমার বউটা পিচ্চি হলেও দেখতে কিন্তু হেব্বি কিউট ।
— আমি রিয়াকে ডাক দিলাম রিয়া রিয়া এই রিয়া।(ঘুম থেকে উঠে চোখ কচলাতে কচলাতে ) উহু কি– এই নাও তোমার ফুচকা। — ওয়াও থ্যাংকস,,, আর সরি,,, আপনার খুব কষ্ট হয়েছে তাই না।– এই নাও তোমার ফুচকা।– না আমার কষ্ট হবে কেন, আমি তো মানুষ না মঙ্গল গ্রহের এলিয়েন।– সরি তো,,,– হয়েছে হয়েছে আর মায়া দেখাতে হবে না খাও।– আপনি খাবেন না।– না আমি ফুচকা খাই না।– ওহ ,,,,,তারপর ও ফুচকা খেতে লাগলো আর আমি বেক্কলের মত তাকিয়ে তাকিয়ে দেখছি। আচ্ছা খাওয়া শেষ হয়ে গেলে ঘুমিয়ে পড়ো আমিও ঘুমাচ্ছি।– আচ্ছা,,,
— সকালে রিয়াল ডাকে ঘুম ভাঙলো,,,ওমা পুচকুটাকে দেখে আমি তো পুরো ৩০০০ ভোল্টের শক খেলাম,,, এত সুন্দর লাগছে পিচ্চিটাকে পিচ্চি মাইয়া কালো শাড়িতে ডায়মন্ডের মত চকচক করছে মনে হচ্ছে ডানা কাটা পরি,,,আমি আমার পিচ্চিটাকে একটানে আপনার বুকের উপর ফেলে দিলাম. পিচ্চিটার ভেজা চুল থেকে অনেক সুন্দর গ্রান আসছে! ওর মুখের উপর থেকে চুলগুলো সরিয়ে দিলাম। তারপর আরো শক্ত করে বুকের সাথে চেপে ধরলাম।– রিয়া আমার বলে কি হচ্ছে,,, — বউকে আদর করা হচ্ছে বেবি একটু রসমালাই খাওয়াও না একটু ।– ইস শখ কত ।বলে পিচ্চিটা পালিয়ে গেল সালি বাসর রাতে বিড়াল মারতে বলে,,, আবার আদর করতে দেয় না। আদর না দিলে বিড়াল মারব কিভাবে পিচ্চি বোঝেনা। 

Basor Rater Golpo

বাসর ঘরে ঢুকতেই পুছকে টা বিছানা থেকে নেমে এসে আমাকে সালাম করেই আমার দুইপাশে কিছু খুঁজতে লাগল আমি ওকে জিজ্ঞেস করলাম– কি ব্যাপার এমন ভাবে কি করতেছ ও কিছুটা অবাক হয়ে আমাকে বলল– কি ব্যাপার বিড়াল কই আপনি জানেন না বাসর রাতে বিড়াল মারতে হয়।ও মজা করছে ভেবে আমি ওকে বললাম।– খুব ফাজিল মেয়ে তো তুমিও বিরক্তিকর ভাব নিয়ে আমাকে বলল।– আমি ফাজিল মানে?
তোমরা কেউ আমারে একবার নাহার পিক দাও আমি খাইয়া মঙ্গল গ্রহে জামুগা) নিজেকে কিছুটা স্বাভাবিক করে। দেখো ভাবির বিড়াল মারার কথা ঠিকই বলেছে, কিন্তু এই বিড়ালটা হচ্ছে তুমি আমি তোমাকে ইঙ্গিত করেছে।– ও বলল– আপনি আমাকে বিড়াল বললেন ?কথাটা বলেই পিচ্চি বউ টা দুই হাত দিয়ে চোখ কচলাতে কচলাতে হু হু হু করে কেঁদতে শুরু করল।– ও আল্লাহ এই কোন মুসিবতে পড়লাম আমি,, আচ্ছা আচ্ছা থামো।– আপনি আমাকে কেন বিড়াল বললেন?– আচ্ছা সরি এই কান ধরছি আর এমন হবেনা।তারপর পিচ্চি টা আমাকে বলল।– আপনার মোবাইলটা একটু দেন তো–কেন ?– এত কথা বলেন কেন ?– আমি ওকে মোবাইলটা দিতে দেখি ও আমার ফোনের ডাটা অন করে মেসেঞ্জারে ঢুকে চ্যাট লিস্ট এর সবকটা মেয়েকেই ব্লক দিয়ে দিছে।– এই তুমি সব কি করছো ??– দেখেন আপনি এখন বিবাহিত আপনি এখন শুধু আমার সাথে কথা বলবেন আমি আপনাকে এতগুলো ভালোবাসি আপনি অন্য কারো হয়ে গেলে আমি বাঁচবো না।– দুঃখের ঠেলায় হাসমু না কানমু কিছুই বুঝতেছি না। বউ আমার ক্লাস সেভেনে পড়ে।
ও আপনাদের তো আমার পরিচয় দেওয়াই হয়নি আমি শ্রাবণ,, । আর ও হচ্ছে রিয়া মানে আপনাদের ভাবি । আর আমি এবার ইন্টার দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র । দুঃখের কথা কি আর কোমু রে ভাই।আমার জল্লাদ আব্বু আমাকে জোর করে এই অল্প বয়সে একটা মেয়ের সাথে বিয়ে করাই দিছে।
যাই এবার মুল কথা– আমার হাত থেকে মোবাইল ফোনটা নিয়ে সব মেয়েদের আইডি ব্লক করে দিন।– আমি বললাম, হ্যাঁ সেটা বুঝলাম কিন্তু ওরা আমাকে মেসেজ করে না — আমি এতকিছু বুঝি না তুমি এখন থেকে আমি ছাড়া অন্য কারো সাথে কথা বলবা না।– কেমনডা লাগে শালার এই মাইয়া তো আমার জীবনটা তেজপাতা করে দিবে ওরে মা আমারে তুই এইডা কার সাথে আমার বিয়ে দিলি।– আচ্ছা দেখা যাবে।– আচ্ছা চলেন লুডু খেলি– কি এই তুমি এত রাতে লুডু কই পাবাকথাটা বলতেই দেখি মেয়েটা টা ধর কাপড় রাখার ব্যাগ থেকে লুডু বের করছে (ওরে আল্লারে এইটা দেখার বাকি ছিল ) — চলুন শুরু করি লুডু খেলা, যদি আপনি হারেন তাহলে আমাকে কিন্তু ফুচকা খাওয়াতে হবে।– আর যদি তুমি হারো??– আমি হারবো না যদিও হারি তাহলে আবার খেলা হবে হিহিহি– মাইয়ার কথা শুনছেন কি ফাজিল মেয়ে রে বাবা তারপর খেলা শুরু, । কাম সারছে শেষমেষ আমি হেরে গেলাম।– এইবার জান আমার জন্য ফুচকা নিয়ে আসেন।– এখন ?– জি– এই তোমার মাথা ঠিক আছে এখন রাত কয়টা বাজে তার উপর আবার বাসর রাতে প্লিজ বাবু আমি কালকে সকালে এনে দিব। — না আমার এখনই লাগবে নয়তো আমি এখন আপনার আম্মুকে বলব আপনি আমাকে ভালোবাসেন না আর অন্য মেয়ের সাথে আপনার অ্যাফেয়ার আছে।
— কেমনডা লাগে তোমরা হাস আর আমি টেনশন এ বাচিনা কি আর করা বাধ্য হয়ে লুকিয়ে লুকিয়ে বাসা থেকে বের হলাম। রাস্তা দিয়ে হাঁটছি আর ভাবছি পৃথিবীতে আমি একমাত্র মানুষই যে কিনা বাসর রাতে ও বাসা থেকে লুকিয়ে বের হয়ে বউয়ের জন্য ফুচকা কিনতে যাচ্ছি তারপর অনেক খুজে একটা ফুচকা ওয়ালার দোকান পেলাম। তাড়াতাড়ি ফুচকা কিনে এক বালতি দুঃখ মনে লইয়া বাসার দিকে রওনা দিলাম বাসায় পৌঁছাতেই দেখি ঘুমিয়ে গেছে ঘুমন্ত অবস্থায় রিয়াকে একেবারে পিচ্চি পরিদের মত লাগছে কি আর বলব রে ভাই আমার বউটা পিচ্চি হলেও দেখতে কিন্তু হেব্বি কিউট ।
— আমি রিয়াকে ডাক দিলাম রিয়া রিয়া এই রিয়া।(ঘুম থেকে উঠে চোখ কচলাতে কচলাতে ) উহু কি– এই নাও তোমার ফুচকা। — ওয়াও থ্যাংকস,,, আর সরি,,, আপনার খুব কষ্ট হয়েছে তাই না।– এই নাও তোমার ফুচকা।– না আমার কষ্ট হবে কেন, আমি তো মানুষ না মঙ্গল গ্রহের এলিয়েন।– সরি তো,,,– হয়েছে হয়েছে আর মায়া দেখাতে হবে না খাও।– আপনি খাবেন না।– না আমি ফুচকা খাই না।– ওহ ,,,,,তারপর ও ফুচকা খেতে লাগলো আর আমি বেক্কলের মত তাকিয়ে তাকিয়ে দেখছি। আচ্ছা খাওয়া শেষ হয়ে গেলে ঘুমিয়ে পড়ো আমিও ঘুমাচ্ছি।– আচ্ছা,,,
— সকালে রিয়াল ডাকে ঘুম ভাঙলো,,,ওমা পুচকুটাকে দেখে আমি তো পুরো ৩০০০ ভোল্টের শক খেলাম,,, এত সুন্দর লাগছে পিচ্চিটাকে পিচ্চি মাইয়া কালো শাড়িতে ডায়মন্ডের মত চকচক করছে মনে হচ্ছে ডানা কাটা পরি,,,আমি আমার পিচ্চিটাকে একটানে আপনার বুকের উপর ফেলে দিলাম. পিচ্চিটার ভেজা চুল থেকে অনেক সুন্দর গ্রান আসছে! ওর মুখের উপর থেকে চুলগুলো সরিয়ে দিলাম। তারপর আরো শক্ত করে বুকের সাথে চেপে ধরলাম।– রিয়া আমার বলে কি হচ্ছে,,, — বউকে আদর করা হচ্ছে বেবি একটু রসমালাই খাওয়াও না একটু ।– ইস শখ কত ।বলে পিচ্চিটা পালিয়ে গেল সালি বাসর রাতে বিড়াল মারতে বলে,,, আবার আদর করতে দেয় না। আদর না দিলে বিড়াল মারব কিভাবে পিচ্চি বোঝেনা। 

বাসর রাতের গল্প,Basor Rater Golpo

See More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.